Monday, February 9, 2015

আঁতেল - নামা

আঁতেল - নামা



"Left  intellectual, Pseudo-intellectual, disconnected due to perceived superiority" এইটা কিসের ডেফিনেশন জানেন। যাদের সকলেই দরকারে চায় কিন্তু আড্ডায় তাদের উপস্থিতি বরই বেদনাদায়ক। প্রতিটি সমাজে প্রতিটি ভাষায় এই গোষ্ঠী নিজের অস্তিত্ব প্রকট করে এক বিকৃত শব্দের উত্তোলনে। প্রথমে প্রতিবাদ পরে নিজের ওপর খিল্লি, তারপর কেটে পরে। কিন্তু কাটবে কোথায় , দরকারে মিষ্টি ভাষায় তাদের বক্ত্যব্য না জেনে ডিসিশন তো নেওয়া যায় না। এরা খিল্লিতে প্রকট, কিন্তু পরিবর্তনে প্রচ্ছন্ন।  এরা গ্রুপ চ্যাট এ চটচটে , কিন্তু পার্সোনাল এ মিহি।  আয়রে ভোলা খেয়াল খোলা আত্মভোলা বুঝিয়ে যা।  এরা "বকবি বক" আমরা "টুকতে থাকি" শুধু বাধা দিস না মোচ্ছবে। এই গোষ্ঠির প্রাধান্য জীবনে আর বর্জনীয়  কোলাহলে।  এরা নিজের খেয়ালে চলে, যেখানে যা বলা চলেনা তাও বলে চলে।  সবসময় কি ভুল শোনা যায় নাকি।  বললেই খিল্লি , "প্রমান কর।" কি করে করব।  স্মার্টফোনে চার্জ নেই।  থাকলেও উইকিপেডিয়া তো ফ্রি , যে যা ইচ্ছা লিখতে পারে, মানলে চলবে।  মানিস না , আবার কিছু বলতে গেলেই , "থাম ভাই , অনেক হয়েছে" . ঠেকের আড্ডায় প্রচুর আওয়াজ খেয়ে চারটের জায়গায় দশটা বিড়ি ফুঁকে বাড়ি ফিরতে না ফিরতে ফোন , "হ্যা রে যেটা বললি কি সেটা সত্যি, লাভ হবে? " প্রথমে রাগ , কিছু উত্তেজনা কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই গলে জল।  উত্তরে প্রশস্তি। বুক ফুলিয়ে রাতে আবার একটা বই খোলে শ্রীমান আঁতেল।

এই আঁতেল নিয়ে দের মহা জ্বালা।  যদিও আঁতেল দের আরো বেশি জ্বালা।  কিন্তু আগে বলি , ভাই , পেটে জ্ঞান থাকলেই পেটো ছুড়তে কে বলেছে।  সবাই জানে পৃথিবীটা তো গোল কিন্তু টিপছাপ লন্ঠনের আলোয় পদিপিসী বলবে , " না , ঘুরে ফিরে তো বাড়ি ফেরা গেল না " তাই কিসের এত চেষ্টা। তুই জানিস ভাই , আমরাও জানি তুই জানিস।  শুধু গম্ভীর হয়ে সন্ধ্যের চায়ের পিন্ডি চটকানোর কোনো মানে আছে।  ঝারি মারা যদি অভিক্ষেপ হয় তাহলে তোকে ভাই বাইরে নিক্ষেপ করেই শান্তি হয়।  মানছি আমরা যখন বসে বসে হাতি গন্ডার মারি , তুই তখন ল্যাম্প পোস্টের আলোয় হংসের বঙ্কিম লিঙ্গের অর্থনৈতিক উপলব্ধি মূল্যায়ন  করিস।  তাতে হয়ত দেশ দু চারপা আগে এগোয়।  কিন্তু ভাই , আমরা ভুলভাল না বকলে কোলাহল হবে কি করে। আমরা সুতো পেলে সারি বুনি, আর তুই সুতো দিলে বলে বসিস টেন পার্সেন্ট পলিয়েস্টার।  আরে বাবা গা তো ঢাকলেই হলো।  সব পরেছ একটা মিস করে গেছ ভাই অপাত্রে দান আর সমুদ্রে পেচ্ছাপ কোনোটাই কাজে লাগে না।  ফাঁপা কলসির আওয়াজ বেশি , তুমি বাপু ভরা কলসি সেই ভাবেই থাক না। কবিও তো বলেছে , " যাহা চাই তাহা ভুল করে চাই , যাহা পাই তাহা চাইনা " মাক্কালি বলছি তোমার জ্ঞান চায়ের কাপে ডোবাতে চাইনা। চন্দ্রিল ছাড়া আর সবই চন্দ্রবিন্দু।

এদের এই ভাষ্যের অদরকারী উদাহরণের ঠেলায় প্রাণ ওষ্ঠাগত হয়ে ওঠে তবু , "আরে শোন না। " থামতেই চায় না।  অবাক জলপানে , ঘোল খাইয়ে ছেড়ে দেয়।  শেষে "বুঝলি তো" আর সাথে "কি বলেছিলাম" তো আছেই।  খাবে বিড়ি আর ব্যাখা করবে লাইটার এর combustion ফুয়েল এর thermodynamics . দু ঘন্টা বাঁদর ঝোলা ঝুলে "ধুত্তেরিকা, এদেশের কিছু হবে না" বললেই বিপদ। নানা কিছু ইসম টিসম নিয়ে বিষম খাইয়ে ছেড়ে দেবে। কি দরকার বাবা।  খিস্তি আর ফোঁড়ার  উদ্ভবই তো অন্তরের বিষ বাইরে আনা।  সেটাতেও ব্যাগড়া দিবি।  খিস্তিতেও সমোচ্চারিত ভিন্নার্থক শব্দযুগলের অর্থপার্থক্য নির্ণয় করতে হবে? পারলাম না। "কি করছিস?" এর উত্তরে আমাদের এখনো বেরয় না , " একটা সরলরেখা খুঁজছি।" আমাদের জন্য হাজার ক্রিয়াপদ আছে।

কিন্তু দুর্ভাগ্য শেষ মেষ এদের কাছেই যেতে হয়,যখন সন্ধ্যের চা আর রাতের  ঘুম শেষ হয়ে আসে আর দরকার হয় সাহায্যের।  আর তখনি সমস্যা শুরু আঁতেল দের। তাদের জ্বালা কে বুঝিতে পারে।  খিস্তি খাওয়ার মুহুর্তে মনে হয় , " ধুর , যত সব কম জানা মাথামোটা " কিন্তু জল চাইলে ভরা কলসি তো ডুগ ডুগ করবই।  চানক্য তো বলেইছে জ্ঞানই একমাত্র বস্তু যা ব্যয় করলে বৃদ্ধি পায়।  অথচ কালকেই আবার অবগ্গা।  নাহ , ক্ষমা করে দিলাম।  এতেই মহত্ব , এতেই উদারতা। কিছুক্ষণ নিজের মধ্যে এইসব বলে , "হ্যা, কি জিজ্ঞাসা করছিলিস?" উল্টো চাপ , অপাত্রে দান।  পাত্র বিচার করার জন্য অনেক সমসয় লাগবে, তার থেকে থাক।  যা চাইছে দিয়ে দি।  উত্তর না দিতে পারলে আবার খোজা শুরু।  মাঝে মাঝে দীর্ঘশ্বাস , " কেউ শুনলো না আমার কথা।"

পরের দিন ঠেকে আঁতেল আবার দুঃখী, তার কথাই সবার মুখে , নাম শুধু অন্যের।  যাঃ শালা। আর বলব না।  কিছুক্ষণ চুপ থাকার পরেই , উচ্চারণে ভুল।  আকুলি বিকুলি।  আবার তত্ত্বে গ্যারা।  অন্তরে ছটফটানি। আবার ইতিহাসের ভুল তথ্য , আর পারা যায় না।  শেষে সত্য নিষ্পেষণে মিথ্যার ক্রমবিবর্তন ক্রমাগত হাতুড়ি নিক্ষেপ করে ভেঙ্গে ফেলে আঁতেল এর স্তব্ধতা। শুরু হয়ে যায় , "না ! এটা ভুল। " "আসলে কি হয়েছিল শোন।" "তথ্য অনুসারে।" ব্যস আর যায় কোথা।  সবে মিলি করি কাজ , আঁতেল থামাও নাহি লাজ। কিছুক্ষণ কুরুক্ষেত্রের পরে কুই কুই করে আঁতেল শেষ করে , " শুরু করেছিলিস urbun dictionary র  যে ডেফিনেশন দিয়ে সেটা শেষ তো কর. This is a Bengali short from of "intellectual" pronounced with a French accept "